Fri. Sep 25th, 2020

mytraveladvisor.co.in

Tour, Travel Expert and Influencer

সিয়াচেন গ্লেসিয়ারের কিছু জানা অজানা কথা

1 min read
Siachen Glacier

Siachen Glacier

সিয়াচেন গ্ল্যাসিয়ার

ভারত ভ্রমণের খনি। এখানের সম্পূর্ণ ভারত ভ্রমণ করতে করতে মানুষের সারা জীবন লেগে যায়। তাই আর বিদেশে না ঘুরে ভারত ভ্রমণ আগে করাই সব থেকে ভালো উপায়। এতে আপনার ভারত মানে নিজের দেশটা জানাও হবে আবার ভারতের বৈচিত্র প্রদর্শনও হবে। কারণ ভারত বৈচিত্রময় দেশ। এখানে বহু ভাষাভাষির বহু ধর্মালম্বী মানুষের বসবাস। এখানে বহু ভৌগলিক অবস্থানও দেখা যায়। কোথাও সমভূমি আবার কোথাও পার্বত্য অঞ্চল, কোথাও মরুভূমি আবার কোথাও সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস। তাই এই ভারতই সবার সম্পূর্ণ ঘুরে দেখা সম্ভব হয়না। আর তাই তো একটি মহাদেশের সমস্ত উপকরণ আছে বলে ভারতকে উপমহাদেশ খেতাবটি দেওয়া হয়েছে। তবে সবার মধ্যে ভারতবাসীর বিশেষ পছন্দ ভারতের পার্বত্য অঞ্চল। এখানে হিমালয় পর্বতশ্রেণি বিরাজমান। এবং আমরা সবাই জানি হিমালয় পার্বত্যভূমিতে কত রকমের ভৌগলিক বৈচিত্র রয়েছে। কোথাও অনুকূল পরিবেশে ভ্রমণের সুযোগ রয়েছে, আবার কোথাও প্রতিকূল পরিবেশে যাত্রীদের জন্য রয়েছে কড়া বাধা। কিন্তু সেই বাধা অতিক্রম করে তবু মানুষ সেই সব জায়গা পরিদর্শণ করে আসে। তেমনই এক জায়গার কথা বলব এখন।

Siachen Glacier
Siachen Glacier

জায়গাটির নাম সিয়াচেন গ্ল্যাসিয়ার। গ্ল্যাসিয়ার শব্দের অর্থ হিমবাহ। এই হিমবাহ এতটাই প্রতিকূল যে এখানে সবাইকে প্রবেশাধিকার দেওয়া হয় না। টি পূর্ব কারাকোরাম রেঞ্জের মধ্যে অবস্থিত। এবং এখানে রয়েছে ভারত ও পাকিস্তানের সুবিশাল বর্ডার। এই গ্ল্যাসিয়ারটি কারাকোরাম রেঞ্জের সবচেয়ে বড় গ্ল্যাসিয়ার এবং অমেরু অঞ্চলের সবচেয়ে বড় হিমবাহ। এটি চীনা সীমান্তের ইন্দিরা কর্নালে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৫৭৫৩ মিটার উচ্চতা থেকে নীচে এসে তার টার্মিনাসে ৩৬২০ মিটার নেমে গিয়েছে। এই হিমবাহটি এবং এর সমস্ত অঞ্চলটি এখন ভারতের অন্তর্ভুক্ত।

ভারতীয় সেনাবাহিনী প্রতি বছর একটি ট্রেকের আয়োজন করে এখানে। এই ট্রেকটি হয় প্রতি বছর অগাস্ট এবং সেপ্টেম্বরে। এই ট্রেকটির জন্য মাত্র তিরিশ জনকে তারা অ্যালাউ করে। এই তিরিশ জনকে নির্বাচন করে ইন্ডিয়ান মাউন্টেনিয়ারিং ফাউন্ডেশন বা আই এম এফ। এটি খুবই সংবেদনশীল একটি ট্রেক। কারণ এতেই একমাত্র সাধারণ মানুষের পৃথিবীর সবচেয়ে বড় এবং লম্বা যুদ্ধস্থল দেখার সুযোগ হয়। এই ট্রেকটি শুরু হয় লাদাখের লে থেকে, যেটি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে বারো হাজার ফিট উচ্চতায় অবস্থিত। এবং সেখান থেকে অংশগ্রহণকারীরা সিয়াচেন বেস ক্যাম্পে যায়। এই ট্রেকে সময় লাগে আট থেকে নয় দিন। দুইদিক থেকেই ৬০ কিমি যাত্রাপথ সূচিত হয়। যদি আপনারা এই যাত্রায় অংশগ্রহণ করতে চান তবে ইন্ডিয়ান আর্মির ওয়েবসাইটে গিয়ে তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *