Sun. Aug 9th, 2020

mytraveladvisor.co.in

Tour, Travel Expert and Influencer

রান উৎসব ২০২০

1 min read
Rann Utsav

Rann Utsav

রান উৎসব ২০২০

সংস্কৃতি নিয়েই মানুষের বেঁচে থাকা। তা ধর্ম কেন্দ্রিক সংস্কৃতি হোক বা জাতি কেন্দ্রিক, উৎসব মানুষের মিলন ঘটায়। এই কথা কেউ অস্বীকার করতে পারবেনা। আর উৎসব সব ধর্ম ও জাতির বাইরে, এক কথায় এটা যাপনের একটা অঙ্গ হয়ে উঠছে ক্রমশ মানুষের কাছে। কারণ মানুষ সমাজবদ্ধ জীব। সমাজের মধ্যে থেকেই তাকে বেঁচে থাকতে হবে। তাই সমাজ টাকেই তারা সব পেয়েছির আসর করে নিয়েছে। তারা উদযাপন করছে উৎসব এবং পার্বণ। বিভিন্ন ধরনের হয় এই উতসব। তা হতে পারে জাতি কেন্দ্রিক, হতে পারে ধর্ম কেন্দ্রিক, আবার হতে পারে অঞ্চল কেন্দ্রিকও। আজ তেমন একটি উৎসবের খবর নিয়ে এসেছি আপনার জন্য।

Rann Utsav
Rann Utsav

উৎসবের নাম রান উৎসব। গুজরাটে অবস্থিত থর মরুভূমির একটি অংশ হল কচ্ছের রান। এটি একটি লবণভূমি। সমগ্র ভূভাগ জুড়ে রয়েছে শুধু নুন। নুনের কারণে এই ভূমিটির রঙ সাদা। পূর্ণিমার রাতে একে অত্যন্ত সুন্দর এবং মোহময়ী দেখায়। এই পূর্ণিমাকে নিয়েই অনুষ্ঠিত হয় রান উৎসব। এই উৎসব পালিত হয় প্রতি বছরের তিন মাস ধরে, ডিসেম্বর থেকে মার্চ পর্যন্ত। এটি অনুষ্ঠিত হয় ধোদ্র গ্রামে যেটি পাঁচশ’ স্কোয়্যার কিমি নোনা মরুভূমিতে অবস্থিত। এখানে প্রায় চারশ’টি তাঁবুঘর বানানো হয়, এখানে তারাই আসতে পারে যারা এখানে থাকবে। এখানে বিভিন্ন অনুষ্ঠান হয়, ফোক মিউজিক ও ডান্স এখানে পারফর্ম করা হয়। এছাড়া বিএসএফ ক্যামেল শো, হট এয়ার বেলুনিং, ক্যামেল কার্টস এক্সকারশন, প্যারা মাউন্টিং ইত্যাদি হয়। এছাড়া হ্যান্ডিক্রাফটসের বিভিন্ন দোকানও বসে বিভিন্ন প্রান্তে। একমাত্র রান উৎসবেই কচ্ছের রানের লোকাল মানুষের জীবন যাপন তাদের সংস্কৃতি এবং তাদের চালচিত্র ধরা পড়ে এবং বোঝা যায়। এই উৎসবের মূল আকর্ষণ হল যেদিন পূর্ণিমা থাকে। পূর্ণিমার গোল থালার মত চাঁদের তলাইয় সাদা নোনাভূমিকে মায়াবী দেখতে লাগে। মনে হয় এক টুকরো স্বর্গে চলে এসেছি। এই দিন প্রায় আট হাজার ট্যুরিস্ট পূর্ণ চাঁদকে দেখতে আসে। এটি উৎসবের থেকেও বড়, বলা যেতে পারে এটা একটা কার্নিভাল। এই কার্নিভালে সমগ্র গুজরাটের মানুষ অংশগ্রহণ করে। এই কার্নিভালে রানকে দেখা ছাড়াও ট্যুরিস্টরা বিভিন্ন পার্শ্ববর্তী প্রান্তেও ঘুরে আসে। গুজরাট একটি সমৃদ্ধির রাজ্য। এখানে দেখার বহু জিনিসই রয়েছে। গুজরাটের ট্যুরিজমের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডার হলেন অমিতাভ বচ্চন, সম্প্রতি বিজ্ঞাপনে অমিতাভ বচ্চনকেও রান উৎসবের বিজ্ঞাপন দিতে দেখা গিয়েছে।

তবে এই উৎসবে যোগ দেওয়ার জন্য আগে থেকে বুকিং করতে হয়। রান উৎসবের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট দেখলেই আপনারা ডিটেইলে সব জানতে পারবেন। তবে আগে থেকে বুকিং না করে থাকলেও ওখানে গিয়ে তৎকালীন বুক আপনারা করতে পারেন। তবে এবার আর মিস করবেন না রান উতসব, চলে যান সাক্ষী হতে এক অসম্ভব সুন্দর জাতির কার্নিভাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *