Sun. Aug 9th, 2020

mytraveladvisor.co.in

Tour, Travel Expert and Influencer

কলকাতার সন্নিকটে একটি অসাধারণ ভ্রমণ স্থান (গোপালপুর অন সি )

1 min read
GOPALPUR

GOPALPUR

গোপালপুর অন সি

মানুষের মনের মধ্যে যত না বৈপরীত্য আছে তার থেকেও বেশি বৈপরীত্য আছে তাদের পছন্দ অপছন্দে। কিছু মানুষ এটা ভালবাসে, কিছু মানুষ ওটা। তাদের পছন্দ নিয়ে তাই সংঘাত বাধাটা খুব একটা অবাক করার কথা নয়। তাই মানুষ নিজের পছন্দ নিয়ে মেতে থাকে খুব বেশি। তা খাওয়া দাওয়ার ব্যপার হোক কি পোশাক আশাক। সবেতেই তাদের পছন্দ খুব ম্যাটার করে। আর যদি সেটা ঘুরতে যাওয়ার ব্যপার হয় তাহলে তো সাঙ্ঘাতিক ব্যপার। কারণ মানুষ তার সময় তার অর্থ ব্যয় করে কোথাও যাবে তা হতেই হবে তার খুব মনের কাছের খুব পছন্দের ডেস্টিনেশন। তাই বিভিন্ন মানুষ কখনও বলে সে সমুদ্র ভালোবাসে। কেউ ভালোবাসে পাহাড়। দ্বন্দ অহর্নিশি লেগে থাকে। সেই দ্বন্দের মধ্যেই মানুষ তার ইচ্ছের দাম রেখে বেড়াতে যায়।

GOPALPUR
GOPALPUR

অনেক সমুদ্র তো আপনারা দেখেছেন। কিন্তু এই সমুদ্র সৈকত দেখলে আপনার বাকি অভিজ্ঞতার মধ্যে এটা শ্রেষ্ঠ’র আসন লাভ করবে তা আশা করে বলা যায়। এই সৈকতের নাম গোপালপুর। এটি ভারতের উড়িষ্যার গঞ্জাম জেলায় অবস্থিত। প্রতি বছরের ডিসেম্বর মাসে এখানে গোপালপুর বিচ ফেস্টিভাল হয়। যেখানে এই জায়গার ট্যুরিজম নিয়ে ও এখানকার কালচার নিয়ে মেলা বসে। এছাড়াও এখানে সারা বছর বিভিন্ন জলজ স্পোর্টস অনুষ্ঠিত হয়। যেমন- স্কুবা ডাইভিং, সাঁতার, উইন্ড সার্ফিং, রোয়িং, প্যাডেল বোট, ওয়াটার স্কুটার ইত্যাদি রাইড করার সুযোগ রয়েছে। এই সিবিচ তার পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য ভ্রমণকারীদের মধ্যে খুবই জনপ্রিয়।

আপনারা হাওড়া থেকে চেন্নাই মেল ধরে ব্রহ্মপুর নামতে পারেন। স্টেশনের বাইরে অটো আছে গোপালপুর যাওয়ার জন্য। স্টেশন থেকে গোপালপুরের দূরত্ব ১৬ কিমি। সমুদ্র সৈকতের উপরেই পেয়ে যাবেন হোটেল। যার ব্যালকনি থেকে দিগন্ত বিস্তৃত সমুদ্রের দেখা পেয়ে আপনার মন নেচে উঠবেই। গোপালপুর একসময়কার নাম করা বন্দর, যেখানে আমদানি-রপ্তানি করা হত সুদূর বার্মা থেকে, এসব হত ইংরেজ আমলে। এখানে ছিল একটি লাইটহাউজও। সপ্তাহের ছুটির দিন গুলো বাদ দিলে গোপালপুর এমনিতেই খুব নিরিবিলি জায়গা। তবে এই সমুদ্রে স্নান না করাই ভালো, কারণ এখানে জলের টান খুব বেশি, তাই ডুবে যাওয়ার আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায়না। তবে উদাসীন সময় যাপন আপনারা সৈকতে বসে করতেই পারেন। এই ট্যুরিস্ট স্পট হানিমুন করার জন্য খুবই জনপ্রিয় স্থান। গোপালপুরের মত সমুদ্র সৈকতে এসেছেন অথচ সূর্যাস্ত আর সূর্যোদয় দেখবেন না তাকি হয়! সৈকতে হাঁটতে হাঁটতে কোড়ান ঝিনুক, পাশে সাজানো দোকান থেকে কিনে ফেলুন ঝিনুক দিয়ে বানানো গয়নাগাটি। সাইড সিন দেখতে যেতে পারেন নির্মল ঝোরায়। যেখানে পুরাতন কালে রাজারা স্নান করতেন। সেখানে দেখবেন পাথরের গা বেয়ে প্রাকৃতিক ভাবেই বেরিয়ে আসছে জল। সেই জলে নাকি স্নান করতেন রাজা-রাজরারা। পাশেই থাকা বিভিন্ন মন্দির রয়েছে। সেখানে রয়েছে মাটির উপর খোদাই করা কিছু কাজ। এসব দেখলে আপনাদের প্রাণ জুড়াবেই আশা করা যায়। চাইলে আপনারা আরও কিছু জায়গা পরিদর্শণ করতেই পারেন। যেমন নারায়নী মন্দির, রম্ভা, চিলকা হ্রদ ইত্যাদি।

গোপালপুর ছোটখাটো ট্যুরের জন্য খুবই ইম্প্রেসিভ একটা জায়গা। তাই আপনাদের হাতে তিন চারদিনের সময় থাকলে ঘুরে আসুন গোপালপুর থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *